পাসপোর্ট ফি : পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে জানুন

নতুন পাসপোর্ট আবেদন কিংবা রিইস্যু করবেন বলে ভাবছেন? পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে এবং কত টাকা লাগে জানেন না? তাহলে জেনে রাখুন পাসপোর্ট ফি কত। দালালের খপ্পরে পড়ে অধিক টাকা এবং সময় অপচয় না করে জেনে রাখুন পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে, এবং নিজেই বানিয়ে ফেলুন একটি ই পাসপোর্ট।

বিদেশে ভ্রমণের জন্য কিংবা সরকারি কোনো কাজের ক্ষেত্রে পাসপোর্ট এর দরকার হয়, বর্তমানে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্বপ্রথম বাংলাদেশ ই পাসপোর্ট সুবিধা চালু করে। পূর্বে মেশিন রিডেবল – MRP পাসপোর্ট চালু ছিল। কিন্তু বর্তমানে সর্বস্ব ই পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়। আর পূর্বের এমআরপি পাসপোর্ট এর ফি এর তুলনায় ই পাসপোর্ট ফি একটু বেশি হয়ে থাকে। তবে আপনি চাইলে আর এখন এমআরপি পাসপোর্ট তৈরি করতে পারবেন না। আর ই পাসপোর্ট তৈরি করতে হলে অবশ্যই আপনাকে পাসপোর্ট ফি সম্পর্কিত তথ্য জানতে হবে, না হলে আপনি দালালের খপ্পরে পরে আধিক টাকার অপচয়ের শিকার হবেন।

পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগে

একজন বাংলাদেশী নাগরিকের ক্ষেত্রে ১৫% ভ্যাটসহ –

  • ৫ বছর মেয়াদি ৪৮ পেইজ – রেগুলার ফি ৪০২৫ টাকা, জরুরী ফি ৬৩২৫ টাক এবং অতিব জরুরী ফি ৮৬২৫ টাকা।
  • ৫ বছর মেয়াদি ৬৪ পেইজ – রেগুলার ফি ৬৩২৫ টাকা, জরুরী ফি ৮৬২৫ টাকা এবং অতিব জরুরী ফি ১২০৭৫ টাকা।
  •  ১০ বছর মেয়াদি ৪৮ পেইজ – রেগুলার ফি ৫৭৫০ টাকা, জরুরী ফি ৮০৫০ টাকা এবং অতিব জরুরী ফি ১০৩৫০ টাকা।
  •  ১০ বছর মেয়াদি ৬৪ পেইজ – রেগুলার ফি ৮০৫০ টাকা, জরুরী ফি ১০৩৫০ টাকা এবং অতিব জরুরী ফি ১৩৮০০ টাকা।

এখানে,

Regular = সাধারন – ২১ কর্মদিবস এর ভিতর বিতরনযোগ্য

Express = জরুরী – ১০ কর্মদিবস এর ভিতর বিতরনযোগ্য

Super Express = অতীব জরুরী – ২ কর্মদিবস এর ভিতর বিতরনযোগ্য

১৮ বছরের কম এবং ৬৫ বছরের বেশি বয়সী আবেদনকারীরা শুধুমাত্র ৫ বছর মেয়াদি ই পাসপোর্ট পাবে। অতিব জরুরি আবেদনের ক্ষেত্রে পুলিশ প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

পাসপোর্ট ফি : বিদেশে বাংলাদেশী দূতাবাস থেকে আবেদন ক্ষেত্রে-

যদি কোন বাংলাদেশী সাধারন নাগরিক বিদেশে অবস্থানরত অবস্থায় পাসপোর্ট এর মেয়াদ শেষ হয়ে যায়, অথবা হারিয়ে যায়, সে ক্ষেত্রে পাসপোর্ট নতুন করে ইস্যু করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশী দূতাবাসে গিয়ে আবেদন করলে নিম্নোক্ত Fee লাগবে।

মেয়াদপেজ সংখ্যাRegular FeeExpress Fee
৫ বছর৪৮ পৃষ্ঠা100 USD150 USD
৬৪ পৃষ্ঠা150 USD200 USD
১০ বছর৪৮ পৃষ্ঠা125 USD175 USD
৬৪ পৃষ্ঠা175 USD225 USD
Table For E-passport Fee Of Foreign Citizen From Bangladesh

আবার অন্যদিকে বিদেশে অবস্থানরত কোন বাংলাদেশী শ্রমিক কিংবা সাধারণ শিক্ষার্থী তাদের পাসপোর্ট আবেদন কিংবা ইস্যু করার ক্ষেত্রে নিম্নোক্ত ফি পরিশোধ করবে –

মেয়াদপেজ সংখ্যাRegular FeeExpress Fee
৫ বছর৪৮ পৃষ্ঠা30 USD45 USD
৬৪ পৃষ্ঠা150 USD200 USD
১০ বছর৪৮ পৃষ্ঠা50 USD75 USD
৬৪ পৃষ্ঠা175 USD225 USD
Table For E-passport Fee Of Foreign Citizen From Bangladesh

অনলাইনে  (ekpay- মাধ্যমে): (Payment option: VISA, Master Card, American Express, bKash, Nagad, Rocket, Upay, Dmoney, OK Wallet, Bank Asia, Brack Bank, EBL, City Bank, UCB, AB Bank, DBBL, Midland Bank, MBL Rainbow গেইটওয়ে ব্যবহার করার মাধ্যমে ই পাসপোর্ট ফি প্রদান করা যাবে। দেখুনঃ পাসপোর্ট ফি দেওয়ার নিয়ম

পাসপোর্ট ফি প্রধান শেষে অবশ্যই এ চালান কপি সংগ্রহ করবেন এবং পাসপোর্ট করতে যা যা লাগে সে সমস্ত ডকুমেন্টের সাথে চালান কপি সংযুক্ত করে পাসপোর্ট অফিসে দাখিল করতে হবে।

Similar Posts

9 Comments

  1. আসসালামু আলাইকুম,
    জনাব, আমি পাসপোর্ট করতে চাইছিলাম কিন্তু আমি বেকার,এখন আমি পেশা কি দিলে কোনো সমস্যা হবেনা? দয়া করে জানাবেন 👏

  2. আসসালামু আলাইকুম, আমি পাসপোর্ট করছিলাম ২০১৬ সালে, পাসপোর্ট করে আমি ওমান ছিলাম,দালাল চকরের কারণে আমাকে জেলে যেতে হয়,সেখান থেকে বাংলাদেশে চলে আসলাম আমার পাসপোর্ট ও মনে রেখে দে এখন আমার পাসপোর্ট এর প্রয়োজন আমি কি করতে পারি? আমি বাংলাদেশে এখন ৫বছর

    1. আগে খোঁজ করে দেখুন আপনার পাসপোর্ট এর কোন কপি স্ক্যান করা কপি আপনার কাছে রয়েছে কিনা, পূর্ববর্তী পাসপোর্ট নাম্বার ইত্যাদি, থাকলে সেগুলো দিয়ে পাসপোর্ট নতুন করে ইস্যু করতে পারবেন। অথবা এ বিষয়ে সরাসরি তথ্যের জন্য ঢাকার আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে যেতে পারেন

  3. আমি পাসপোর্ট করছিলাম কিন্তু আমার আগের পাসপোর্টের মত হয় নাই তাই আমি সৌদি আরব ঠোকতে পারছি না এখন আমি কি করবো এখন আমার ঐ পাসপোর্ট সেম সেম লাগবে আমার আগের পাসপোর্ট এই রকম আমার নাম ছিলো ইংরেজিতে juwel Mohammad এখন আমার পাসপোর্ট দিছে ই পাসপোর্ট miah md jewel এখন আমি কি করবো আগের পাসপোর্ট না হলে আমি সৌদি আরব যেতে পারবো না আমার আগের নাম জেটা আছে সেটা লাগবে আমি কি করবো ভেবে পারছি না ঐ পাসপোর্ট না হলে যেতে পারবো আমাকে হেল্প করুন।

    1. আপনার হয়তো কোথাও ভুল হয়েছিল আবেদনের সময়, পাসপোর্ট রিনিউ করার সময় অবশ্যই পূর্ববর্তী পাসপোর্ট প্রদর্শন করতে হয়, এবং পূর্ববর্তী পাসপোর্ট এর সাথে মিল রেখেই পাসপোর্ট আবেদন করতে হয়, এক্ষেত্রে যদি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী আবেদন করে থাকেন তাহলে আপনার পাসপোর্টটি সেইভাবে হবে, যেহেতু আপনি সৌদি আরব প্রবেশ করতে পারছেন না সেহেতু আপনাকে পুনরায় আপনার পূর্ববর্তী পাসপোর্ট অনুযায়ী পাসপোর্ট সংশোধন এবং রি ইস্যু আবেদন করতে হবে

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।